ইয়োগা করার নিয়ম বা যোগব্যায়াম করার পদ্ধতি tech515.com

https://tech515.com/wp-content/uploads/2021/09/ইয়োগা-করার-নিয়ম-বা-যোগব্যায়াম-করার-পদ্ধতি-2.jpg

Table of Contents

যোগব্যায়াম বা ইয়োগা করার সঠিক নিয়ম আমরা কিভাবে জানতে পারি ?

যোগ ব্যায়াম করার সহজপদ্ধতি নিয়ম সহকারে নিম্নে আলোচনা করা হল

  • যোগাসন কি  ?
  • যোগাসন পদ্ধতি  :
  • যোগ ব্যায়াম করার নিয়ম   ? 
  • প্রাণায়াম কত প্রকার ও কি কি  ?

ইয়োগা করার নিয়ম আলোচনা করার পূর্বে কিন্তু একটি ঘটনা আপনাদের জানা প্রয়োজন,

আমি যখন ইয়োগা শুরু করি এবং নিয়মিত করতে থাকি, একদিন আমার এক বন্ধু আমাকে বলে “কিরে বুড়োদের

মত বেঁকে বসে কি করছিস তার থেকে আমার মত গেম খেল ভালো লাগবে”

আমার মত আপনারা আপনার কোন বন্ধু কোন না কোন সময় আপনাকে এই কথাটি শুনিয়েছে আপনি হয়তো হালকাভাবে হেসে কথাটি কে উড়িয়ে দিয়েছেন ,

আমাদের মাঝে অনেকেই জানেনা যে ব্যাপারটা কি এবং কতটুকু উপকারী শরীরটাকে বেঁকিয়ে ছড়িয়ে বসে থেকে লাভ কি ?

আজ আমি আপনাদের সাথে ইয়োগা সম্বন্ধে কিছু গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করব,।

যদি আপনি ভেবে থাকেন আপনার স্বপ্নের গাড়ি বা স্বপ্নের বাড়ি টা কিনতে পারলেই আপনি খুশি হয়ে যাবেন, ইয়োগা করার নিয়ম জানা বাদে

তাহলে আপনি ভুল পথে হাঁটছেন,আমরা সাধারণত ইয়োগা কিংবা যোগব্যায়াম সম্পর্কে

অনেকেই পুরোপুরি অবগত নই যোগব্যায়াম মানুষের দৈহিক এবং মানবিক, মননশীলতা বিকাশে কতটা সাহায্য করে

প্রাচীনকাল থেকেই যোগীরা যোগ ব্যায়ামের মাধ্যমে তারা বিভিন্ন রোগ এবং

মানুষকে এর মাধ্যমে বিভিন্ন শারীরিক ও মানসিক প্রশান্তি দান করে আসছে

এর মাধ্যমে তারা নিজেরাও উপকৃত হয়ে আসছে, আমরা যদি একটু চিন্তা করে

দেখি যে প্রতিটি ধর্মেই বিভিন্ন ইবাদতের মাধ্যমে মানুষ প্রশান্তি লাভ করছে কিন্তু।

একটু যদি দেখা যায় ধর্মের মধ্যে কিছু কিছু আমলে কিংবা অভ্যাসে ,যোগব্যায়ামের উপস্থিতি দেখা যায় যেমন ইসলাম ধর্মে সুফিজম ক্ষেত্রে,

কিন্তু যেহেতু সেটা আমরা এক্সপিরিয়েন্স করতে পারি না বরং আমাদের ফাইভ সেন্সেস এর মাধ্যমে আমরা সারাক্ষণ এটি উল্টোটাই এক্সপেরিয়েন্স করি তাই আমরা সেটা মেনে নিতে পারিনা।

সুফিরা যুগ যুগ ধরে বিভিন্ন আমল দিয়েছেন তার মধ্যে শ্বাস-প্রশ্বাসের

বিভিন্ন আমল দিয়েছেন, দেখা যায় যে যোগব্যায়াম কিন্তু তার মধ্যেই পড়ে, আবার হিন্দু

ধর্মে যোগব্যায়াম ব্যাপক প্রাচীনকাল থেকে প্রচলিত এবং বৌদ্ধ ধর্মে তা

দেখা যায়, আমরা সাধারণত সুস্থ শরীর বলতে সকালে উঠে দৌড়ানো,

মর্নিং ওয়ার্ক এর পাশাপাশি জিম করা কে বুঝি কিন্তু এগুলি থেকে ইয়োগা বা যোগ-ব্যায়াম করলে অনেক বেশি উপকৃত হওয়া যায়,

এক্সারসাইজ করলে হয়তো শারীরিকভাবে উপকৃত হওয়া যায় কিন্তু

ইয়োগা বা যোগ-ব্যায়াম করলে শারীরিক এবং মানসিক রোগ দুটো,

থেকেই বেঁচে থাকা যায়, আপনি জানলে অবাক হবেন যে ইয়োগা বা

যোগ-ব্যায়াম এ এমন এমন কিছু আসন আছে জা করলে আমাদের

বিকল কিডনি বা লিভার রোগ থেকে সহজেই সেরে ওঠা যায়, বয়:বৃদ্ধিতে আমাদের অনেকেরই হাড়ের সমস্যা দেখা যায় সেগুলি থেকে

যোগ ব্যায়ামের আসন নিয়মিত পালনে অনেক উপকার পাওয়া যায়,

এইসব উপকারের আপনি তখনই পাবেন যখন আপনি এটি বিশ্বাস করবেন এবং যথাযথভাবে আসনগুলি পালন করবেন,

তাছাড়া আমাদের দৈনন্দিন জীবনের নানাবিধ শারীরিক সমস্যার ক্ষেত্রে

অন্যতম একটি সমস্যা হচ্ছে গ্যাসের সমস্যা কমবেশি সবারই পেটে গ্যাস

জমে আর এর থেকে পরিত্রাণের একটি সহজ উপায় হচ্ছে ইয়োগা বা

যোগ-ব্যায়াম, যোগ-ব্যায়াম বেশ কয়েকটি আসন রয়েছে যা করলে পেটের গ্যাস

সহজেই নির্মূল হবে, তাছাড়া আমরা আমাদের বয়সের ছাপ আমাদের দেহে

থেকে কমাতে চাইলে যোগ ব্যায়ামের নিয়ম গুলি যথেষ্ট, স্কিনের সমস্যা

ক্ষেত্রে যোগব্যায়ামের বেশ কিছু কার্যকরী আসন রয়েছে মেয়েলি সমস্যা

ক্ষেত্রে যোগব্যায়ামের বেশ কিছু কার্যকরী আসন রয়েছে

অনেক সময় মাসিকের গন্ডগোল এবং স্রাবের সমস্যার

ক্ষেত্রে যোগ ব্যায়ামের আসন গুলি অনেক উপকার করে চুল পড়ার

সমস্যা, যোগব্যায়ামের চুল পড়া সমস্যার সমাধানও রয়েছে আমরা

আমাদের শ্বাস-প্রশ্বাসের সঠিক প্রয়োগ এবং নেয়ার মাধ্যমে আমাদের

শরীরে রক্ত চলাচল ঠিক রাখতে পারি সেক্ষেত্রে আমাদের ব্লাড প্রেসারের সমস্যার সমাধান হতে পারে।

কয়েকটি আসনের মাধ্যমে চোখের সমস্যা ও সমাধান হয়ে যায়,

আপনার চোখকে অনেকক্ষণ যাবৎ বন্ধ রাখতে হবে, এবং নির্দিষ্ট সময় মাঝে মাঝে খোলা রাখতে হবে ।

বেটে সমস্যা আমরা অনেকেই আমাদের উচ্চতা নিয়ে খুব চিন্তিত, 

অথচ আমরা যদি কিছু যোগ ব্যায়ামের আসন নিয়মিত করতে 

থাকি ,তাহলে কয়েক ফুট পর্যন্ত লম্বা হওয়া কোন অসম্ভব কিছু না।

রাত্রে ঘুম না হওয়া অনিদ্রার সমস্যার খুব সহজ সমাধান হচ্ছে নিয়মিত যোগ ব্যায়াম করা এবং প্রচুর পরিমাণে পানি পান করা,

যোগব্যায়াম খিঁচুনি রোগ থেকে পরিত্রান দিয়ে থাকে,

তাছাড়া মোটা হওয়া থেকেও পরিত্রাণ এবং স্লিম হওয়ার ক্ষেত্রে যোগ ব্যায়ামের বিকল্প নেই,

যৌন রোগ সমস্যা বর্তমান বিশ্বে এই সমস্যাটা ব্যাপক দেখা যাচ্ছে

তাই যোগ ব্যায়াম মাধ্যমে এই সমস্যাটা অনেকেই সমাধান করতে পারে।

জনপ্রিয় ভারতীয় অভিনেত্রী শিল্পা সেটির নিয়মিত ইয়োগা চর্চা করে থাকেন

তার ইউটিউব ভিডিও থেকে আপনারা আরও কিছু জানতে পারবেন ভিডিও টি দেখুন

মানুষের সৃষ্টিগতভাবেই তার ভিতরে শক্তি নিয়ে জন্মায় যোগব্যায়াম সেই শক্তিকে,

জাগ্রত করতে সাহায্য করে নির্বিঘ্নে ধ্যান করার মাধ্যমে মানুষ তার সেই শক্তিকে জাগাতে পারে। 

তাছাড়া মানুষ তার তৃতীয় চোখ জাগ্রত করতে পারে, তৃতীয় চোখ

বোঝায় যা প্রতিটি মানুষের সৃষ্টি গত ভাবে রয়েছে। 

 যোগ / Yoga কি ?

যোগ সংস্কৃত শব্দ  ‘যুজ’ থেকে পেয়েছে , বিশাল উপাদানের সঙ্গে পৃথক উপাদান যোগসূত্র বোঝায়। 

যোগব্যায়ামের তথ্য 5000 বছর বয়সী ভারতীয় তথ্য। যোগের যত সংজ্ঞা আছে পৃথিবীতে যত যোগী আছে। 

একে আধ্যাত্মিক ব্যায়াম, আচার অনুশীলন, আসন ব্যায়াম বলা যেতে পারে, একটি মানসিক শৃঙ্খলা । 

যোগ ব্যায়াম বা যোগাসন কি ?

যোগ শব্দের ইংরেজি নাম হবে Yoga , যা যোগ বা সংহত করতে চায়।

চরিত্রের সাথে স্থিরতা সংহত করে সম্প্রীতি অর্জনের পদ্ধতি।  শারীরিক ও মানসিক ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে। 

অর্ধেক বাক্য সহ যোগ একটি সহজ অর্থ মিলন,

কারও সাথে পুনর্মিলন, আপনার সাথে পুরো মহাবিশ্ব মিলন,

 চোখ বন্ধ করে আপনি চিন্তা করুন সমস্ত বিশ্ব আপনার মধ্যে বিদ্যমান,  

আমরা যেহেতু এটা অনুভব করতে পারিনা, তাই আমরা আমাদের পাঁচটি ইন্দ্রিয়ের ,

শক্তিতে তৈরি, এবং যখন আপনি এ বিষয়টি উপলব্ধি করতে পারবেন তখনি আপনার ইয়োগা কার্যকর হবে।

আরো জানুন: ভালো উক্তি সমূহ

আপনি কি যোগব্যায়াম করার নিয়মের সঠিক নির্দেশিকা জানেন ?

আমরা কি সঠিক নিয়ম জানি যে কিভাবে যোগ ব্যায়াম করা উচিত, আমাদের অনেকেরই সঠিক কৌশল সম্পর্কে কোনও ধারণা নেই।

আমরা সাধারণত দেখা যায় কিছু এক্সারসাইজ করি এবং হাটাহাটি করি, এবং সেটাকে এনাফ মনে করি, অথচ সঠিক সময়ে ইয়োগার

মাধ্যমে শরীরকে সম্পূর্ণরূপে ফিট রাখা যায়, পশ্চিমা বিশ্বে বর্তমানে সুস্থ থাকার জন্য যোগের উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়ছে।

একটি ভাল লক্ষন, কারণ দেহ এবং মস্তিস্ককে সুস্থ রাখার জন্য এর কোন বিকল্প নেই ।

নিয়মাবলী

প্রথমদিকে হালকা ব্যায়াম দিয়ে শুরু করতে পারেন ফ্রি হ্যান্ড এক্সারসাইজ প্রথমদিকে যোগব্যায়ামের সমস্ত আসনগুলি করতে যাবেন না

এতে করে আপনার স্বাস্থ্যের উপর চাপ পড়তে পারে প্রথমদিকে শুধু শ্বাস-প্রশ্বাসের আসনগুলি করতে পারেন শ্বাস ছাড়ুন এবং নিন,

এক্ষেত্রে প্রাণায়ামের রেচক এবং পূরক পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন কিন্তু এখনই কুম্ভক করতে যাবেন না

পরে যখন আপনি যোগাসনের সমস্ত আসনগুলি আস্তে আস্তে করতে থাকবেন তখন থেকে যোগ্য শিক্ষকের হেল্প নিয়ে কুম্ভক করবেন

প্রাণায়াম হচ্ছে শ্বাস-প্রশ্বাসের নিয়ন্ত্রণ, বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে শ্বাস প্রশ্বাসকে নিয়ন্ত্রণ করে মস্তিষ্কের যথাযথ স্থানে অক্সিজেন পৌঁছানোর ব্যবস্থা কে বোঝায়,

শরীর এবং মনকে একত্র করতে প্রাণায়াম এর জুড়ি নেই, প্রাণায়াম করতে পারলে আপনার দেহের চিরসুখ নির্ধারিত,

প্রাণায়াম আমাদের দেহের প্রতিবিম্বের গভীরে প্রবেশ সহজ করে দেয়।

তিন ধরনের প্রাণায়াম আছে, যেমন- রেচক, পূরক, কুম্ভক

(ক ) রেচক:  শরীর থেকে নিশ্বাস নেওয়াকে রেচক বলা হয়।

(খ). পূরক:    শরীরে বা বাইরে শ্বাস নিয়ে দেহকে পূর্ণ করার নাম পূরক।

(গ). কুম্ভক:   শ্বাস-প্রশ্বাস দেহের মধ্যে বা দেহের বাইরে আবদ্ধ করা কে কুম্ভক বলে।

উপযুক্ত গুরু ছাড়া কুম্ভক নিষিদ্ধ। অনেক ব্যক্তি কল্পনা করেন যে প্রাণায়াম একটি শ্বাসকষ্ট, কিন্তু বাস্তবে তা নয়।

প্রাণায়াম মূলত জীবনের সংযম। প্রাণায়াম ফুসফুসের কার্যকারিতার সঙ্গে যুক্ত। শ্বাস -প্রশ্বাস হল প্রধান চক্র যা শরীরের গতি নিয়ন্ত্রণ করে।

আত্মা আমাদের শরীরকে চালিত করে এবং শ্বাস -প্রশ্বাস হচ্ছে অস্তিত্ব শক্তির প্রত্যক্ষ প্রকাশ।

উপসংহার:

পরিশেষে একটি কথাই বলা যায় সুস্থ দেহ সুস্থ মন পেতে যোগব্যায়ামের তুলনা নাই।

 তাই যথা সময়ে যোগব্যায়াম সকলেরই শুরু করে দেয়া উচিত ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *